২২ মার্চ, ২০১৭

দেহের কোথায় তিল থাকলে কি হয়?



মানবদেহে তিলের অবস্থান থেকেও একজন মানুষের সম্পর্কে ধারনা করা যায়। কেউ হয়ত বলবেন, এটা একটি কুসংস্কার ছাড়া আর কিছু নয়। কিন্তু প্রাচীন সামুদ্রিক শাস্ত্রে দেহের কোথায় তিল থাকলে কি হয় তা বর্ণনা করা হয়েছে। দীর্ঘ গবেষণার পরেই প্রাচীন ভারতীয় পণ্ডিতেরা এই তত্ত্ব গ্রহন করেছেন। শরীরের কোনও বিশেষ অংশে তিল থাকলে আপনার সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায় অনেকটাই। তবে তিল যে শুধু আপনার শারীরিক সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে তা নয়। দেহের কোথায় তিল থাকলে কি হয় তা নিম্নে বর্ণনা করা হয়েছে-


যাদের হাতে তিল রয়েছে তারা চালাক চতুর হন। ডান হাতে তিল থাকলে তারা শক্তিশালী হন। আবার ডান হাতের পিছনে তিল থাকলে তারা ধনী হয়ে থাকেন। বাঁ হাতে তিল থাকলে সেই ব্যক্তি অনেক বেশি টাকা খরচ করেন। আবার বাঁ হাতের পিছনের দিকে তিল থাকলে সেই ব্যক্তি কৃপণ প্রকৃতির হয়ে থাকেন। যে ব্যক্তির ডান হাতে তিল থাকে তারা প্রতিষ্ঠিত ও বুদ্ধিমান হন। বাঁ হাতে তিল থাকলে তারা ঝগড়াটে স্বভাবের হন। যাদের তর্জনীতে তিল রয়েছে তারা বিদ্বান, ধনী ও গুণী হয়ে থাকেন। তারা বেশিরভাগ সময়েই শত্রু দ্বারা সমস্যায় জর্জরিত থাকেন। বৃদ্ধাঙ্গুলে যাদের তিল থাকে তারা কর্মঠ, সদ্ব্যলহার ও ন্যায়প্রিয় হন। মধ্যমায় তিল থাকলে ব্যক্তি সুখী হন। তাদের জীবন শান্তিতে কাটে৷ কনিষ্ঠ আঙুলে তিন থাকলে সেই ব্যক্তি জ্ঞানী, যশস্বী, ধনী ও অপরাজেয় হন।


পুরুষের শরীরের ডান দিকে ও পুরুষের শরীরের বাঁ দিকে তিল থাকলে তা শুভ হিসেবে মনে করা হয়। পণ্ডিতেরা জানিয়েছেন শরীরে ১২টির কম তিল থাকা শুভ।


যাদের ভ্রুতে তিল রয়েছে তাদের প্রায়ই ভ্রমণের যোগ রয়েছে৷ ডান ভ্রুতে তিল থাকলে কোনও ব্যক্তির দাম্পত্য জীবন সুখের হয়। বাঁচ ভ্রুর তিল দুখী দাম্পত্যের লক্ষণ।


মাথার মাঝখানে তিল নির্মল ভালসাবার প্রতীক। মাথার ডান দিকে তিল থাকলে তা কোনও বিষয়ে নৈপুণ্যের প্রতীক। আবার যাদের মাথার বাঁ দিকে তিল রয়েছে তারা অর্থের অপচয় করেন। মাথার ডান দিকে তিল ধন ও বুদ্ধির চিহ্ন। বাঁ দিকের তিল নিরাশাপূর্ণ জীবনের সূচক।


ডান চোখে তিল থাকলে ব্যক্তি উচ্চবিচার ধারা পোষণ করেন। বাঁ চোখের তিল যাদের রয়েছে তাদের ভাবনা চিন্তা তেমন উন্নত নয়। যাদের চোখের মণিতে তিল থাকে তারা সাধারণত ভাবুক প্রকৃতির হন।

চোখের পাতায় যাদের তিল রয়েছে তারা সাধারণত সংবেদনশীল হন। তবে যাদের ডানদিনেক চোখের পাতায় তিল রয়েছে তারা অন্যদের তুলনায় অতিরিক্ত সংবেদনশীল হয়ে থাকেন।


যাদের কানে তিল রয়েছে তাদের আয়ু অনেক বেশি থাকে।


নারী বা পুরুষের মুখমণ্ডলের আশেপাশে তিল তাদের সুখী ও ভদ্র হওয়ার ইঙ্গিত দেয়। মুখে তিল থাকলে ব্যক্তি ভাগ্যে ধনী হন ও তার জীবনসঙ্গী খুব সুখী হন।


নাকে তিল থাকলে ব্যক্তি প্রতিভাসম্পন্ন ও সুখী হন। যে নারীর নাকে তিল রয়েছে তারা সৌভাগ্যবতী হন।


যাদের ঠোঁটে তিল রয়েছে তাদের হৃদয়ে ভালবাসা ভরপুর। তবে ঠোঁটের নীচে তিল থাকলে সে ব্যক্তির জীবনে দারিদ্র বিরাজ করে।


গালে লাল তিল থাকা শুভ৷ তবে গালে কোলে তিল অর্থহীনতার প্রতীক। কিন্তু ডান গালে তিল থাকলে ব্যক্তি ধনী হন।


যে নারীর থুতনিতে তিল রয়েছে তারা সহজে লোকের সঙ্গে মেলামেশা করতে পারেননা। তারা সাধারণত একটু রুক্ষ স্বভাবের হয়ে থাকেন।


ডান কাঁধে তিল থাকলে সেই ব্যক্তি দৃঢ়চেতা হন। যাদের বাঁ কাঁধে তিল রয়েছে তারা অল্পেতেই রেগে যান।


যে ব্যক্তির কোমরে তিল রয়েছে তাদের জীবনে সমস্যার আনাগোনা থাকে।


নারীদের ডান দিকে বুকে তিল থাকা শুভ। এমন পুরুষও ভাগ্যশালী হন। বাঁ দিকের বুকে তিল থাকলে নারী অসহযোগি হন। বুকের মাঝখানের তিল সিখী জীবনের ইঙ্গিত দেয়।


যে জাতকের পায়ে তিল রয়েছে তাদের জীবনে প্রচুর ভ্রমমের যোগ রয়েছে। ডান হাঁটুতে তিল থাকলে গৃহস্থজীবন সুখের হয়। বাঁ হাঁটুর তিল সংসারে অশান্তি ডেকে আনে।


যে ব্যক্তির পেটে তিল রয়েছে তারা খুব পেটুক প্রকৃতির হয়ে থাকেন। মিষ্টি এই ধরণের মানুষের অত্যন্ত প্রিয়। তবে এরা অন্য কাউকে নিজের টাকায় খাওয়াতে একেবারেই পছন্দ করেননা।

বি:দ্র:- আমার কথা হল, উপরোক্ত বর্ণনা সমূহের যেহেতু কোন বৈজ্ঞানিক যুক্তি নেই, হয়ত ক্ষেত্রবিশেষে মিলে যায়- তাই এসবের কোন নিশ্চয়তাও নেই। যদিও “বাঁ হাতে তিল থাকলে সেই ব্যক্তি অনেক বেশি টাকা খরচ করেন।” এই কথাটি আমার সাথে মিলেছে পুরোটাই।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন